জানুয়ারি ২৫, ২০২২
মানচিত্র
অভিমত

শুরু হলো আজ নতুন বছর- ২০২১,

শুরু হলো আজ নতুন বছর- ২০২১,

~সাহাদাত হোসেন

শুরু হলো আজ নতুন বছর- ২০২১, অথচ মনেহয় এইতো সেদিন- ২০১৯, ডিসেম্বরের ৩১ তারিখ চীনের হুবেই প্রদেশে প্রথম করোনা নামক এক ক্ষুদ্র দানব খুব ধীরে ধীরে হেটে ঢুকে পরেছিলো উহান প্রদেশে ৷ পৃথিবীর মানুষ তখন ঘুণাক্ষরেও চিন্তা করতে পারেনি ছোট এই দানবটি পরের ৬ মাসের মধ্যে পুরো দুনিয়াকে লণ্ডভণ্ড করে দেবে।

নভেল করোনা ৷ মিষ্টি এক নাম ! অতি ক্ষুদ্র, ছোট্ট এক প্রান অথচ প্রবল ধ্বংসলীলায় এলোমেলো করে দিয়েছিলো উহানের প্রাদেশিক রাজধানী হুবেই নগর ৷ মানব জাতির গর্বিত-উদ্ধত শির অধোমুখী করে দিয়েছে ৷ মিথ্যা অহমিকা আর দম্ভ চূর্ণ হয়ে গেছে, মাথা নিচু করে প্রকৃতির দুনির্বার শক্তি অুনুভব করছে মানব জীবন ৷ দুর্দান্ত প্রতাপে পৃথিবী শাসন করা মানুষ কত অসহায়; ভয়ে আতংকে তাকিয়ে দেখেওনি রাস্তায় মৃত পরে থাকা মানুষটি তার পিতা বা ভাই কি না ?

বনের হিংস্র বাঘ, সিংহ, পশু পাখী, জলের কুমীর, হাঙরকে খাঁচায় বন্দী রাখা মানুষগুলো সে সময় নিজেরাই ঘরের খাঁচায় বন্দী হয়ে গিয়েছিলো ৷ মনে হচ্ছিলো, দাম্ভিক-লোভী মানব হৃদয়গুলোকে ভাইরাস দ্বারা পরিশুদ্ধ করা হচ্ছে । লাক্সারী ট্র্যাপে আটকে যাওয়া, বিরামহীন গতিতে ছুটে চলা মানুষগুলোকে হঠাৎ যেনো থামিয়ে দিয়ে শীতল চোখে ধমকে দিয়ে বলেছে -Just Shut up and Back home.

সেসময় প্রতি সেকেন্ডে শত শত গাড়ী ছুটে চলা রাস্তাগুলোয় ছিলো হিরণ্ময় নীরবতা ৷ আহ্ কি স্নিগ্ধ নি:শব্দ দুপুর ! বাতাসে পোড়া ফুয়েলের কার্বন মনোক্সাইড কমে গিয়ে বেড়ে গিয়েছিলো বাঁচার অক্সিজেন । ধুলায় ধূসর পাতাগুলোয় তখন চিক্ চিক্ করছিলো সবুজ আভা ৷ এমন স্বচ্ছ নীল আকাশ অনেকদিন দেখেনি হুবেই শহর । পারিবারিক বন্ধনগুলি জীবন পায়নি বহুবছর ৷

এক ফ্ল্যাটে থেকেও যেনো ছিলো অচেনা পরস্পর ৷ ক্ষুদ্র দানব করোনা এক ধমকে পরিবারের প্রিয় মুখগুলোকে এক সাথে ঘরের এক কোনে এক টেবিলে মুখোমুখি বসিয়ে দিয়েছিলো বহুদিন পর । বছরের পর বছর পড়ে থাকা বইগুলো অলস পাঠক পেয়ে গেলো অখণ্ড অবসরে । টুকরো হয়ে যাওয়া সম্পর্কগুলো জোড়া লাগছিলো ফের । এ, ওর খোঁজ খবর জানতে চাইছিলো মোবাইলে ৷ ওল্ড হোমগুলোয় প্রিয় সন্তানদের ভীর ৷ আহারে মমতাময়ী মা ৷ শুধু নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত মানুষেরা হারিয়ে যাওয়া প্রিয় মুখগুলো আবার খুঁজে পেয়েছিলো ৷ পিছনে ফেলে আসা ভালো লাগা পারিবারিক মুহুর্ত গুলোকে নাড়া দিয়ে গেল নভেল করোনা ৷

মানব জাতির জন্য দিয়ে গেলো এক সুস্পষ্ট ও গভীর তাৎপর্যময় বার্তা – অকৃতজ্ঞ, উদ্ধত মানুষগুলিকে প্রবল ধাক্কা দিয়ে বুঝিয়ে দিলো, পৃথবীতে সুপার পাওয়ার বলে কিছু নেই কেবল তিনি ব্যতিত, যিনি এক ও অদ্বিতীয়, প্রবল পরাক্রমশালী আল্লাহ্ ৷ নভেল করোনা মহোদয় ৩৮০ বার নিজের জিন্ বদলে নিয়ে চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের কানের লতি মুচড়ে দিয়েছে ৷ এত তাড়াতাড়ি ছাড়বে বলে মনে হয় না ৷ ঘার ধরে বুঝিয়ে ছাড়বে- – “বহুত হয়েছে, একটু থামো, জীবনকে ভালবাসো, জুলুম করো না, অন্যের সম্পদ আত্নসাৎ করো না । নিশ্চই একজন সুপার পাওয়ার তোমাদের সকল কিছুই প্রত্যক্ষ করেন ৷” জীবন কেড়ে নেওয়া এই নির্দয় শত্রু এক অর্থে জীবনের ভিতরে আবার জীবন দিয়ে গেলো ৷

Related posts

র‍্যাবের অনুরোধ

srabon

ভাস্কর্য বিরোধিতা বক্তব্য যৌক্তিকঃ চরমোনাই পীর

Labonno

মুজিব কোর্টের অপব্যবহার হচ্ছে’ আজকের বাংলাদেশে 

farah pushpita

Leave a Comment

Translate »