জানুয়ারি ২৫, ২০২২
মানচিত্র
জীবনধারা

বড়দিনে বিরল দর্শন, ৮শ’ বছরে সবচেয়ে কাছে বৃহস্পতি-শনি

বিধিনিষেধের বালাই নেই মহাকাশে! বড়দিনে তাই কাছাকাছি বৃহস্পতি-শনি। আগামী ১৬ থেকে ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সৌরমণ্ডলের এই দুই বৃহত্তম গ্রহ একে অপরের খুব কাছে চলে যাবে। ২১ ডিসেম্বর এতোই কাছাকাছি চলে যাবে যে তাদের দেখে যুগ্ম গ্রহ বলে ভুল হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানায়, প্রায় ৮শ’ বছর পর আকাশে এই দুই গ্রহের যুগলবন্দি দেখা যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের রাইস ইউনিভার্সিটির পদার্থবিদ্যা ও জ্যোতির্বিজ্ঞানের অধ্যাপক প্যাট্রিক হার্টিগান বলেন, এই দুই গ্রহের বিন্যাস খুবই বিরল। প্রতি ২০ বছর অন্তর ব্যবধানের তারতম্য ঘটে। কিন্তু এই যুগলবন্দি খুবই বিরল। কারণ এই সময় একে অপরের অনেক কাছে চলে যাবে তারা। এমন এক মহাজাগতিক ঘটনা দেখার জন্য বিজ্ঞানীদের বহু বছর অপেক্ষা করতে হয়।

জ্যোতির্বিদ প্যাট্রিক জানান, শেষ বার ১২২৬ সালের ৪ মার্চ ভোরে কাছাকাছি এসেছিল বৃহস্পতি ও শনি। তবে এই দুই গ্রহ যে আবারো কাছাকাছি যাচ্ছে তা  রাতের আকাশ দেখতে পছন্দ করা মানুষের কিছু দিন ধরেই নজরে এসেছে। এই মুহূ্র্তে রাতের আকাশে নজর রাখলে ওই দুই গ্রহের দূরত্ব আরও কমেছে বলে বুঝা হবে।

প্যাট্রিক জানিয়েছেন, ১৫ থেকে ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে সূর্যাস্তের পর পশ্চিম আকাশে এই দুই গ্রহকে কাছাকাছি দেখা যাবে। তবে ২১ ডিসেম্বর যখন যুগ্ম গ্রহের আকার ধারণ করবে তখন তাদের মধ্যে পূর্ণচন্দ্রের ব্যাসের এক পঞ্চমাংশ দূরত্ব থাকবে। ওই সময় দূরবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে দেখলে দুই গ্রহের উপগ্রহগুলোও দেখা যেতে পারে।

নাসা জানিয়েছে, আপাতদৃষ্টিতে দুই গ্রহকে যতই কাছাকাছি দেখা যাক, বাস্তবে তাদের মধ্যে কয়েকশো হাজার লাখ মাইলের দূরত্ব বজায় থাকবে। পৃথিবীর সব প্রান্ত থেকেই দুই গ্রহের এই যুগলবন্দি দেখা যাবে। তবে নিরক্ষরেখা বরাবর যে দেশগুলি আছে সেখান থেকে সবচেয়ে ভালভাবে বিষয়টি লক্ষ্য করা যাবে। গ্রহগুলো এতোই উজ্জ্বল থাকবে যে গোধূলিতেও তাদের দেখা মিলবে আকাশে।

এ বারে কেউ যুগলবন্দি দেখতে না পেলে তাদের কাছাকাছি দেখতে অপেক্ষা করতে হবে ২০৮০ সালের ১৫ মার্চ পর্যন্ত। তার পর আবার ২৪০০ সালে একে অপরের কাছাকাছি আসবে দুই গ্রহ শনি ও বৃহস্পতি।

Related posts

যেসব খাবার মন ভালো রাখে

Labonno

অর্থ আয়ের পথ সহজ করল ইউটিউব!

srabon

করোনার এই সময়ে বিয়ের অনুষ্ঠান : যা মেনে চলতে হবে

Labonno

Leave a Comment

Translate »