জানুয়ারি ২৪, ২০২২
মানচিত্র
আন্তর্জাতিক

আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে প্রাথমিক চুক্তি

বড় ধরনের সাফল্য এসেছে আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে আলোচনায়। কাতারের রাজধানী দোহায় আফগান সরকারের প্রতিনিধি ও তালেবান নেতাদের মধ্যে চলমান আলোচনায় প্রাথমিক চুক্তিতে পৌঁছানোর ঘোষণা দিয়েছে দুই পক্ষ।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানায়, কাতারের দোহায় দীর্ঘদিন ধরে আলোচনা চলছে আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে। মতবিরোধের কারণে এতদিন সে আলোচনা এগোচ্ছিল না। তবে গতকাল বুধবার যৌথ বিবৃতি দিয়ে আফগান সরকার ও তালেবান জানিয়েছে, তাদের মধ্যে প্রাথমিক চুক্তি হয়েছে। ভবিষ্যতের আলোচনা কীভাবে এগোবে, যুদ্ধবিরতি নিয়ে কীভাবে আলোচনা হবে তারই রূপরেখা এই প্রাথমিক চুক্তিতে তৈরি হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, গেল ১৯ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে লিখিত চুক্তি হলো।

এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, একটি যৌথ ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করা হবে। শান্তিচুক্তির এজেন্ডা কী হবে তার খসড়া তৈরি করবে এই কমিটি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে শান্তি আলোচনায় আফগান সরকারের প্রতিনিধি নাদের নাদেরি বলেছেন, আলোচনার পদ্ধতি ও প্রস্তাবনা চূড়ান্ত হয়েছে। এবার নির্দিষ্ট কর্মসূচি অনুযায়ী আলোচনা চলবে। টুইট করে এই বক্তব্য সমর্থন করেছেন তালেবান প্রতিনিধিও।

টুইট করে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র সাদিক সিদ্দিকি জানিয়েছেন, প্রাথমিক চুক্তির পর এবার মূল বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা এগিয়ে নেওয়া হবে। এর মধ্যে আফগান জনগণের প্রধান দাবি, যুদ্ধবিরতির প্রসঙ্গও আছে।

চুক্তির জন্য দুপক্ষকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তিনি বলেছেন, এই চুক্তি হলো মতৈক্যে পৌঁছনোর জন্য দুই পক্ষের নিরন্তর চেষ্টা ও ইচ্ছার যোগফল। যাতে সহিংসতা কমিয়ে যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছাতে পারে দুইপক্ষ। এর জন্য চেষ্টা করবে যুক্তরাষ্ট্র।

জাতিসংঘের আফগান বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি জালমে খালিজাদ জানিয়েছেন, দুইপক্ষের মধ্যে তিন পাতার প্রাথমিক চুক্তি হয়েছে। সেখানে রাজনৈতিক রোডম্যাপ প্রণয়ন এবং সামগ্রিক যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনার জন্য বিধান ও প্রক্রিয়া ঠিক করা হয়েছে। সবাই মতৈক্যে পৌঁছেছে।

আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের মধ্যে লড়াই এখনো চলছে। দোহায় কয়েক মাস ধরে দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনা চলছিল। প্রথমে যুদ্ধবিরতি নিয়ে কথা বলতে রাজি ছিল না তালেবান। তাদের বক্তব্য, আলোচনা অনেকটা এগোলে এ নিয়ে কথা বলা যেতে পারে।

গেল মাসে একবার মতৈক্যের খুব কাছে পৌঁছেছিল দুইপক্ষ। চুক্তির প্রস্তাবনা নিয়ে শেষ সময়ে বেঁকে বসে তালেবান। তখন আর প্রাথমিক চুক্তির ঘোষণা করা যায়নি। তালেবানের দাবি ছিল, চুক্তিতে আফগান সরকার শব্দটা রাখা যাবে না। বর্তমান সরকারকে জনগণের আসল প্রতিনিধি বা ন্যায়সঙ্গত সরকার বলে মানে না তালেবান।

তালেবান ও আফগান সরকারের চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে পাকিস্তান। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই চুক্তি প্রমাণ করে দিচ্ছে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা মিটিয়ে নিতে চাইছে দুপক্ষই।

এস এ

Related posts

টেক্সাসে বিপর্যয় ঘোষণা করতে যাচ্ছেন বাইডেন

Labonno

নয়াদিল্লীতে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চ দিবস পালিত

srabon

করোনা: ভারতে একদিনে মৃত্যু ৪১৫৭

Maydul Islam

Leave a Comment

Translate »